web stats নিজের ব্যর্থতা ঢাকতে উত্তেজনা তৈরি করছে সৌদি আরব : রুহানি

বুধবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৫ আশ্বিন ১৪২৭

নিজের ব্যর্থতা ঢাকতে উত্তেজনা তৈরি করছে সৌদি আরব : রুহানি

সৌদি আরব নিজের ব্যর্থতা ঢাকার জন্য উত্তেজনা তৈরি করছে বলে মন্তব্য করেছেন ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি। টেলিভিশনে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে রুহানি বলেন, তুরস্ক ও পাকিস্তানসহ অন্য প্রতিবেশী দেশের সঙ্গে যখন ইরানের সম্পর্ক ক্রমাগত উন্নত হচ্ছে, সেখানে সৌদি আরবের সঙ্গে দিন দিন অবনতি হচ্ছে। এর জন্য সৌদি আরবকে দায়ী করেন তিনি। বলেন, তাদের ভেতর সম্পর্ক উন্নয়নের কোনো আগ্রহ নেই। যেখানে অন্য সবার সঙ্গে আমাদের সম্পর্ক ভালো হচ্ছে, সেখানে তাদের সঙ্গে কেন হবে না? তাদের বৈরি মনোভাবের কারণেই এমনটি হচ্ছে বলে অভিযোগ করেন তিনি। এ খবর দিয়েছে আল জাজিরা। রুহানি বলেন, সৌদি আরব এখন মৌলিক সমস্যাগুলোর সমাধান করতে চাচ্ছে। এর প্রধান কারণ হলো, দেশটি কাতার, ইরাক, সিরিয়া এবং চূড়ান্তভাবে লেবাননে পরাজিত হয়েছে। দ্বিতীয়ত, সৌদি আরবের অভ্যন্তরীণ অবস্থা সুবিধাজনক না। তাদের মধ্যে অনেক মতবিরোধ রয়েছে। তাই তারা নিজেদের ব্যর্থতা ও অভ্যন্তরীণ সমস্যা ঢাকতে ইরানকে শত্রু হিসেবে দাঁড় করিয়েছে। নভেম্বরের শুরুর দিকে ইরান হুতি বিদ্রোহীদের অস্ত্র সরবরাহ করছে বলে অভিযোগ করে সৌদি আরব। পাশাপাশি রিয়াদে ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপের পিছনেও ইরানের হাত রয়েছে বলে দাবি তাদের। তবে বুধবারের সাক্ষাৎকারে রুহানি কোনো হামলার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগ অস্বীকার করেন। উল্লেখ্য, ২০১৫ সাল থেকে ইয়েমেনে হুতি বিদ্রোহীদের বিরুদ্ধে অভিযান চালাচ্ছে রিয়াদের নেতৃত্বাধীন আরব জোট। কিন্তু হুতিদের বিরুদ্ধে যুদ্ধে দৃশ্যত তেমন কোনো সফলতা পায়নি তারা। ইয়েমেনের রাজধানী সানা এখনো হুতিদের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। ছয় বিশ্ব শক্তির সঙ্গে স্বাক্ষরিত পারমাণবিক চুক্তির বিষয়েও কথা বলেন রুহানি। যুগান্তকারী এই চুক্তির বিরোধিতা করেছিল সৌদি আরব। চুক্তি অনুযায়ী পারমাণবিক কর্মসূচি সীমিত করার বিনিময়ে অবরোধ থেকে মুক্তি পায় ইরান। এ বিষয়ে রুহানি বলেন, এই অঞ্চলে পারমাণবিক চুক্তির শত্রু হলো ইসরাইল ও সৌদি আরব। কিন্তু তারা ব্যর্থ হয়েছে। তিনি বলেন, তার দেশ সংঘাতের পরিবর্তে আলোচনার মাধ্যমে এই অঞ্চলের সমস্যাগুলোর সমাধান করতে চায়। কিন্তু দুই দেশের কূটনীতিক ও সামরিক বাহিনীকে এই বিষয়টি উপলব্ধি করতে হবে। সৌদি আরবে শিয়া মুসলিম নেতা নিমর আল নিমরের শিরশ্ছেদের পর থেকে ইরান ও সৌদি আরবের মধ্যে নতুন করে উত্তেজনা শুরু হয়। তখন ইরানে নিযুক্ত কূটনীতিকদের ওপর হামলা চালানো হয়। প্রতিক্রিয়ায় ইরানের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করে সৌদি আরব।

এই বিভাগের আরো খবর


WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com