web stats কি কারণে অভিনয় ছেড়েছিলেন শাবানা !

বুধবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৫ আশ্বিন ১৪২৭

কি কারণে অভিনয় ছেড়েছিলেন শাবানা !

সত্তর থেকে নব্বই দশকে জনপ্রিয়তার তুঙ্গে ছিলেন এ নায়িকা। পরিচালক এহতেশামই তার ‘রত্মা’ নাম বদলে শাবানা রাখেন। ক্যারিয়ারে ২৯৯ টি ছবিতে অভিনয় করেছেন তিনি। পাশাপাশি ২৫ টি ছবির প্রযোজকও তিনি। অভিনয়ের জন্য ১১ বার পেয়েছেন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার।

প্রবাস জীবন ফেলে ব্যক্তিগত কাজে বছরে দু-একবার দেশে এলেও চলচ্চিত্র শিল্পের সঙ্গে বর্তমানে কোনো যোগাযোগই নেই তার। তার অভিনীত সর্বশেষ চলচ্চিত্র ছিল ‘ঘরে ঘরে যুদ্ধ’।

সম্প্রতি দেশে এসেছিলেন তিনি। সাংবাদিকদের সাথে কথাও বলেছেন। অভিনয় ছেড়ে দেয়ার বিষয়ে শাবানা বলেন, সন্তানদের কথা ভেবেই তিনি অভিনয় ছেড়েছেন। তিনি বলেন, সন্তানদের ঠিকভাবে গড়ে তুলতে হবে। না হলে তার এই অভিনয় জীবন দিয়ে কী হবে!

তাই কষ্ট হলেও সিনেমা ছেড়ে সন্তানদের ব্যাপারে মনোযোগী হবার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম। এ জন্যই যুক্তরাষ্ট্রে পাড়ি দেন।

শাবানার তিন সন্তানের মধ্যে দুই মেয়ে ও এক ছেলে। তিনি জানান, ‘সুমী ইকবাল এমবিএ ও সিপিএ করেছে। তবে এখন পুরোদস্তুর গৃহিণী। ছোট মেয়ে উর্মি সাদিক মাস হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পিএইচডি করেছে। ছেলে নাহিন সাদিক রটগার্স বিশ্ববিদ্যালয় থেকে মাস্টার্স করে এখন ব্লুমবার্গে চাকরি করছে।

তিনি জানান বাচ্চারা বিদেশে চলে যাবার পর তাকে খুব মিস করছিলো। তাই বাচ্চাদের জন্য তিনিও এক পর্যায়ে দেশ ছাড়ার সিদ্ধান্ত নেন।

দীর্ঘ ১৭ বছর ধরে রূপালি পর্দা থেকে দূরে রয়েছেন তিনি। তাতে কী? সিনেমা প্রেমীরা কিন্তু তাকে একটু সময়ের জন্য হলেও ভুলে যাননি। দেশের টান, মনের টান, জন্ম, বেড়ে ওঠা, অভিনয় জীবন, মানুষের ভালোবাসায় শাবানা হয়ে ওঠা-সবই তো বাংলাদেশে।

১৯৭৩ সালে সরকারী কর্মকর্তা ওয়াহিদ সাদিকের সঙ্গে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন শাবানা। তবে তিনি দেশের বাইরে থাকলেও মনটা তার দেশে পড়ে থাকে দেশে। তা শাবানার কথায় স্পষ্ট।
তিনি বলেন, ‘সত্যি কথা বলতে আমি দেশে না থাকলেও কারও কাছ থেকে দূরে নেই। প্রতিটা মুহূর্তে দেশ, দেশের মানুষ আর চলচ্চিত্রের খবর নেই। আমি সবাইকে খুব মিস করি। কিন্তু কী করব, যুক্তরাষ্ট্রে যখন স্থায়ী হয়েই গিয়েছি তখন চাইলেই যখন খুশি তখন চলে আসতে পারি না।’

এই বিভাগের আরো খবর


WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com