web stats আপনার ফেসবুক আইডি যদি হ্যাক হয় তাহলে যা করবেন

বুধবার, ১৫ জুলাই ২০২০, ৩১ আষাঢ় ১৪২৭

আপনার ফেসবুক আইডি যদি হ্যাক হয় তাহলে যা করবেন

সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম হিসেবে বর্তমান ফেসবুক বহুল আলোচিত ও জনপ্রিয়। যুগের সাথে তাল মিলিয়ে ফেসবুক ব্যবহারে রীতিমতো আসক্ত হয়ে পড়ছেন এর ব্যবহারকারীরা।

তবে নিরাপত্তা বিষয়ক নিয়ম কানুন ভালোভাবে না জানার ফলে ফেসবুক আইডি হ্যাক হওয়ায় অনেককেই নানা হয়রানি ও বিড়ম্বনার শিকার হচ্ছেন।

ফেসবুক আইডি হ্যাক হওয়া এক ব্যবহারকারী নোমান (ছদ্ম নাম)। তিনি একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে চাকরি করেন। একদিন রাত সাড়ে ১০টায় অজ্ঞাত এক নম্বর থেকে তার সেল ফোনে কল আসে। ভরাট গলায় বলা হয়, “আপনার ফেসবুক আইডিটি হ্যাক করা হয়েছে’।

এমন কথা শুনে কিংকর্তব্যবিমূঢ় অবস্থায় দ্রুত তার ফেসবুক অ্যাকাউন্ট সাইন ইন করতে গিয়ে দেখেন পেজ খুলছে না। তার নিজের পাসওয়ার্ডটিকে ভুল বলা হচ্ছে। তার মানে অ্যাকাউন্টটি এখন অন্যের কবজায়।

বিশ মিনিট পর হ্যাকাররা পুনরায় ফোন করে জানায়, নতুন পাসওয়ার্ড পেতে হলে তাদের বিকাশ নম্বরে ৫ হাজার টাকা পাঠাতে হবে।
হ্যাকাররা আরও বলেন, ‘এই নম্বরে বিকাশের মাধ্যমে দাবিকৃত টাকা না পাঠানো হলে ওই অ্যাকাউন্ট থেকে আজে-বাজে স্ট্যাটাস দেয়া হবে। ‘

তবুও নোমান হ্যাকারদের টাকা দাবির বিষয়ে কোনো কর্ণপাত করেননি। এর কিছুদিন পর করিম নামে এক ব্যক্তি থানায় অভিযোগ করেন নোমান নামে এক ফেসবুক আইডি থেকে তার কাছে পাঁচ লাখ টাকা দাবি করা হয়েছে। ওই টাকা পাঠানোর জন্য একটি বিকাশ নম্বরও দেয়া হয়েছে। ওই ব্যক্তির অভিযোগের প্রেক্ষিতে পুলিশ ওই আইডির তথ্য ব্যবহার করে নোমানকে জিজ্ঞাসাবাদ করে। তখন নোমান পুরো ঘটনা পুলিশকে বলে। পাশাপাশি পুলিশ বিকাশ নম্বর ব্যবহারকারীকেও গ্রেফতার করে।

সুতরাং যে কোনো সময় যে কেউ হতে পারেন নোমান অথবা করিমের মতো এমন বিড়ম্বনার শিকার। তাই ফেসবুক ব্যবহারে সচেতনতা জরুরি। পাঠকদের জন্য নিরাপদ ফেসবুক ব্যবহারে কিছু করণীয় আলোচনা করা হলো :

১। পাসওয়ার্ড রক্ষা করতে হবে : কখনও পাসওয়ার্ড কারো সাথে শেয়ার করা যাবে না। এমন পাসওয়ার্ড নির্বাচন করুন যা অনুমান করা কঠিন। কখনই নিজের নাম বা সাধারণ শব্দ পাসওয়ার্ড এ ব্যবহার করা উচিত না।

ফেসবুক পাসওয়ার্ডটি শুধু মাত্র ফেসবুকের জন্য ব্যবহার করা উচিত। অন্য কোনো সিকিউরিটির ক্ষেত্রে একই পাসওয়ার্ড ব্যবহার করলে তা প্রকাশ পাওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যায়।

২। অন্য কেউ যেন আপনার ফেসবুক একাউন্টে লগ ইন করতে না পারে তাই অতিরিক্ত নিরাপত্তা (Login Approvals) ব্যবহার করতে পারেন।

এই জন্য ফেসবুকের Two step verification পদ্ধতি অবলম্বন করতে পারেন।

৩। ই-মেইল অ্যাকাউন্ট নিরাপদ রাখতে হবে।

৪। ব্যবহার শেষে ফেসবুক একাউন্ট থেকে অবশ্যই লগ আউট করতে হবে।

৫। নিউজ ফিডে অথবা মেসেঞ্জারে সন্দেহজনক কোনো লিঙ্ক দেখলে সাথে সাথে রিমুভ করে দিতে হবে। নিশ্চিত না হয়ে যেকোনো গেম, অ্যাপ্লিকেশন এবং অন্যদের পাঠানো কোনো লিঙ্কে ক্লিক করা উচিত না।

৬। ফেসবুক অ্যাকাউন্টে বিকল্প ই-মেইল আইডি যুক্ত করুন। যদি আপনার প্রোফাইল কোনো কারণে হ্যাকও হয়ে যায় সেক্ষেত্রে ফেসবুক আপনার দ্বিতীয় ই-মেইলে আপনার অ্যাকাউন্ট পুনরুদ্ধারের জন্য তথ্য পাঠাবে।

৭। অপরিচিত কারোর ফ্রেন্ড রিকোয়েস্ট গ্রহণ করার আগে তার প্রোফাইল চেক করে নিতে হবে।

৮। একেবারে ব্যক্তিগত কোনো ছবি, তথ্য (ফোন নম্বর, ঠিকানা, ই-মেইল এড্রেস ইত্যাদি) ফেসবুকে শেয়ার করা উচিত না।

৯। আপনার পোস্ট কারা দেখতে পারবে তা সতর্কভা

এই বিভাগের আরো খবর


WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com