web stats নিজেকে অন্যের চোখে আকর্ষণীয় করে তুলতে আপনাকে যে দশ উপায় অবলম্বন করতে হবে

রবিবার, ১২ জুলাই ২০২০, ২৮ আষাঢ় ১৪২৭

নিজেকে অন্যের চোখে আকর্ষণীয় করে তুলতে আপনাকে যে দশ উপায় অবলম্বন করতে হবে

আপনার কি এমন কোন বন্ধু আছে যিনি সকলের প্রশংসা, সম্মান ও অফুরন্ত ভালোবাসা পেয়ে থাকেন? কিংবা পরিচিত এমন কোন ব্যক্তি যিনি কী না সর্বদা দয়ালু, বন্ধুবৎসল ও অনুপ্রেরণাদায়ক? যার কথা শুনলে মনে হয় পাহাড়ও ঠেলে সরানো সম্ভব!

নিজেকে ভালোবাসা ও নিয়মিত নিজের যত্ন নেওয়া আপনাকে অন্যের কাছে আকর্ষণীয় করে তোলে। অনেক উপায়ে আপনি নিজেকে অন্যের কাছে পরিপূর্ণ, সুন্দর ও সাবলীল করে তুলতে পারেন।

অপরের চাইতে নিজেকে মূল্য ও গুরুত্ব দেওয়া স্বার্থপরতা মনে হতে পারে কিন্তু এটি আপনার স্বাস্থ্য, মানসিকতা ও বিকাশের ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।

কয়েকটি বৈশিষ্ট্য বা গুণের কারণে কিছু কিছু মানুষ অন্য সকলের কাছে খুব পছন্দনীয় ও প্রশংসনীয় হয়ে ওঠেন। কিন্তু কী সেই গুণগুলো? জানতে ইচ্ছা করে নিশ্চয়ই। আমরা কমবেশি আমরা সকলেই সবার পছন্দের মানুষ হয়ে থাকতে চাই। তবে সমাধান কী?

হা, সমাধান তো আছেই। চলুন জেনে নেয়া যাক এমনই দশটি গুণের কথা যা আপনাকে অন্যের কাছে খুব পছন্দনীয় করে তুলবে।

মানুষের সঙ্গে গভীর সখ্যতা গড়ে তুলুন আমরা সকলেই কমবেশি মানুষের সঙ্গে সংযুক্ত এবং যাদের সঙ্গে আমাদের সখ্যতা বেশি তাদেরকেই খুব আকর্ষণীয় মনে হয়, এটিই স্বাভাবিক। পছন্দনীয় মানুষ হওয়া খুব সহজ কিন্তু অন্য মানুষের ব্যাপারে জানারও আগ্রহ পোষণ করুন। মানুষের কাজ, পছন্দ এবং গল্প জানার জন্য সম্ভাব্য বিভিন্ন প্রশ্ন করুন। মানুষ একা থাকলে কি করতে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করে? কিংবা তাদের ভয়ভীতি এবং স্বপ্ন কোন বিষয়কে ঘিরে?

বন্ধুত্বকে গুরুত্ব দিন
প্রকৃত বন্ধুরা কখনোই বন্ধুত্বকে হারিয়ে যেতে দেয় না। বন্ধুত্বের সম্পর্কে গভীর যত্নে লালন করে আপনি ভালোবাসার সম্পর্কে অবস্থান করার অভিজ্ঞতাও অর্জন করে থাকেন। সর্বোপরি, বন্ধুরা আপনাকে হাসিখুশি রাখে এবং এটিই অনেক আকর্ষণীয় একটি অভ্যাস।

বর্তমান সময়ে অবস্থান করুন
বর্তমান যুগে নারীরা স্বতস্ফূর্ত পুরুষদের অধিক আকর্ষণীয় বলে মনে করে থাকেন। স্বতস্ফূর্ততা হলো নিজের সম্পর্কে জানার একটি শান্তিপূর্ণ প্রক্রিয়া। এ মুহূর্তে প্রত্যেকটি জিনিস যেভাবে চলছে ঠিক সেভাবেই চলতে দেওয়ার জ্ঞানই হলো স্বতস্ফূর্ততা। আমাদের এটি চর্চা করা উচিৎ অন্য যেকোন কিছুর আগে। কেন না, আমরা অনেকেই বর্তমান মুহূর্তের দিকে মনোযোগ না দিয়ে দুশ্চিন্তা ও ডিপ্রেশনেই সময় কাটিয়ে দিই।

শারীরিক পরিশ্রম বৃদ্ধি করুন
ব্যায়াম আমাদের শরীরকে সুগঠিত করে এবং স্বাস্থ্যবান করে তোলে। অবশ্যই একজন স্বাস্থ্যবান মানুষ অসুস্থ মানুষের তুলনায় অধিক আকর্ষণীয়। পুরুষ কিংবা নারী যারা সুস্থ সঙ্গী খুঁজছেন এবং পরিবার পরিকল্পনা করবেন বলে ভাবছেন, তাদের জন্য এটি খুব গুরুত্বপূর্ণ একটি প্রক্রিয়া। কোন আকর্ষণীয় মানুষের কথা ভাবুন, তার দেহভঙ্গি কি অনেক সাবলীল নয়?

সুষম খাবার খেয়ে নিজেকে পরিপূর্ণ করুন
নিয়মিত সুষম খাবার খেলে আপনি লাবণ্যময় ত্বকের অধিকারী হবেন। উজ্জ্বল ও দ্বীপ্তিময় ত্বক সকলের কাম্য এবং আমরা সকলে জানি যে সৌন্দর্য ভেতর থেকে আসে। তৈলাক্ত ও ভাজাপোড়া খাবার না খেয়ে ফল, শাকসবজি ও আমিষসমৃদ্ধ খাবার বেশি খান। এতে করে শরীর ও মন দুই-ই ভালো থাকবে।
নিজের মূল্য বুঝতে চেষ্টা করুন

নিজের দায়িত্ব ও মূল্য বুঝুন। নিজের চরিত্র, বুদ্ধিমত্তা ও কর্মশক্তির ব্যাপারে আত্মবিশ্বাসী থাকুন। নিজেকে ভালোবাসা ও নিজের মূল্য বুঝতে পারাটা আত্মবিশ্বাসের অন্যতম বহিঃপ্রকাশ।
ঘুমের অভ্যাস ঠিক করুন

আমাদের শরীর কেমনভাবে কাজ করবে তার গঠনপ্রণালী ঠিক করে পর্যাপ্ত ঘুম। দীর্ঘক্ষণ কাজের পর অল্প কিছু সময় বিশ্রাম নেওয়ার অভ্যাস তৈরি করুন। এতে করে কাজের প্রতি মনোযোগ বৃদ্ধি পাবে এবং আপনি সুস্থ থাকবেন। অসুস্থতা আপনাকে স্পর্শ করবেনা।

মানসিকভাবে, যে সকল মানুষ পর্যাপ্ত বিশ্রাম নিয়ে কাজ করেন তারা যেকোন ধকলের সঙ্গে খুব স্বাভাবিকভাবে খাপ খাইয়ে চলতে পারেন। এ অভ্যাস আয়ত্ব করা শিখুন।

নিজের জন্য কিছু সময় বের করুন অবশ্যই
সব সময় কি কাজে ব্যস্ত থাকা আপনার জন্য উত্তম হবে? মোটেও না। সপ্তাহান্তে অথবা সময়-সুযোগ বুঝে একান্তে সময় কাটানোর জন্য অবশ্যই কিছু সময় নির্ধারণ করুন। সে সময় প্রিয় কোন কাজ করুন। সেটি হতে পারে বই পড়া, বাগান করা, রান্না করা কিংবা ইয়োগা-মেডিটেশন করা।

ভুল থেকে শিখুন
বুদ্ধিমত্তা মানে এই নয় যে আপনার একটি ডিগ্রী আছে। ভুল শুধরে নিয়ে এবং সেখান থেকে শিক্ষালাভ করার মাধ্যমেও আপনি বুদ্ধিমত্তার পরিচয় দিতে পারেন। মনে রাখবেন যে, পুরো পৃথিবীই আপনার জন্য একটি বিশ্ববিদ্যালয় এবং আপনি ক্রমে ক্রমে এর থেকে শিক্ষালাভ করছেন।

সহজ ব্যাপারের মধ্যেই আনন্দ খুঁজুন
প্রত্যেক মুহূর্তেই আপনার জন্য সুযোগ আছে রাগান্বিত, আনন্দিত কিংবা দুঃখিত বোধ করার। আনন্দ ও কৃতজ্ঞতাবোধকে বেছে নিন যেকোন অবস্থানে। মুখে একটি হাসি রাখুন এবং সবার সঙ্গেই সৌজন্যমূলক ব্যবহার করুন। মানুষ আপনাআপনি আপনাকে পছন্দ করে নেবে।

এই বিভাগের আরো খবর


WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com