web stats ইলিশে মাছের শূন্যতা মেটাচ্ছে বাংলাদেশের পাবদা

শনিবার, ৩১ অক্টোবর ২০২০, ১৫ কার্তিক ১৪২৭

ইলিশে মাছের শূন্যতা মেটাচ্ছে বাংলাদেশের পাবদা

পশ্চিমবঙ্গের বাজারে বাংলাদেশের ইলিশের শূন্যতা মেটাচ্ছে বাংলাদেশেরই পাবদা। কলকাতা ও সংলগ্ন এলাকায় বাংলাদেশের পাবদা যোগানে দামও অনেকটা কমে গিয়েছে। সীমান্তের ওপার থেকে প্রতিদিন টন টন পাবদা আসছে এপারে এবং আসছে আইনি পথেই। জানা গেছে, বাংলাদেশের যশোর জেলায় বিভিন্ন জলাশয়ে বাণিজ্যিকভাবে প্রচুর পরিমাণে পাবদার চাষ হচ্ছে। সেই পাবদাই সকালে ধরে বিকেলের মধ্যে চলে আসছে এপারে। আর পর দিন তা ছড়িয়ে পড়ছে কলকাতা ও আশপাশের বাজারে।

নানা সাইজের পাবদা পাওয়া যাচ্ছে বাজারে। বাংলাদেশের পাবদা একেবারেই খাঁটি এবং কোনও কেমিকেল দেওয়া থাকছে না। বনগাঁর ব্যবসায়ীরা জানিয়েছেন, ইলিশ নিয়ে যে আক্ষেপ রয়েছে তা অনেকটাই কেটে গিয়েছে প্রচুর পরিমাণ পাবদা আসায়। বাঙালির বিভিন্ন উৎসব অনুষ্ঠানে ইলিশ, রুই, কাতলার পাশাপাশি পাবদারও বেশ চাহিদা রয়েছে। বাংলাদেশি পাবদা হাতের কাছে পাওয়ায় ক্যাটাররা সেদিকেই ঝুঁকছেন বলে জানালেন ব্যবসায়ী সঞ্জু দাশ। পশ্চিমবঙ্গে অবশ্য ওড়িশা ও মধ্যপ্রদেশ থেকে পাবদা মাছ আমদানি হয়। তবে বাংলাদেশের মাছ এক অর্থে অনেকটাই টাটকা এবং পরিষ্কার জলের মাছ।

বনগাঁর নিউ মার্কেটের মাছ ব্যবসায়ীরা জানিয়েছেন, এখন প্রতিদিন বৈধপথে টন টন পাবদা আসছে এ রাজ্যের বাজারগুলিতে। এই কারণেই দাম কমেছে এই মাছের। মাছ ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে জানা গেছে, এ রাজ্যের বাজারে পাবদা সাধারণত বিক্রি হয় ৫০০ রুপিরও বেশি দামে। বাংলাদেশ থেকে আমদানি হওয়ায় সেই মাছের দাম এখন অনেকটাই কমে গেছে। ৫০ গ্রাম ওজনের পাবদা পাইকারি বাজারে বিক্রি হচ্ছে কেজি প্রতি ৪০০ রুপিতে। সেই মাছ খুচরো বাজারে পাওয়া যাচ্ছে ৪৫০ রুপিতে। আর ৮০ থেকে ৯০ গ্রাম ওজনের পাবদা খুচরো বাজারে বিক্রি হচ্ছে প্রতি কেজে ৫০০ রুপিতে । বাংলাদেশের পাবদা টাটকা হওয়ায় ব্যবসায়ীরাও ভারতের অন্য রাজ্যের পাবদা আমদানি কমিয়ে দিয়েছেন বলে জানা গেছে।

এই বিভাগের আরো খবর


WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com