web stats আদালতের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করেছে বিএনপি: ওবায়দুল কাদের

মঙ্গলবার, ৩১ মার্চ ২০২০, ১৭ চৈত্র ১৪২৬

আদালতের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করেছে বিএনপি: ওবায়দুল কাদের

খালেদা জিয়ার জামিন না পেয়ে বিএনপি আদালতের বিরুদ্ধে অঘোষিত যুদ্ধ ঘোষণা করেছে বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক যোগাযোগ ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, “আসলে বিএনপি আদালতের বিরুদ্ধে অঘোষিত যুদ্ধ ঘোষণা করেছে। ঢাকা শহরের নেতাকর্মীদের নিয়ে যে বিক্ষোভের ডাক দিয়েছে এই বিক্ষোভ আদালতের বিরুদ্ধে”। শনিবার ধানমন্ডি আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে আ‌য়ো‌জিত সংবাদ সম্মেলনে তি‌নি এ কথা বলেন।

বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে নেতাকর্মীদের ঢুকতে দেয়া হচ্ছে না এমন অভিযোগের জবা‌বে ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপি অভিযোগ করেছে এটা ঠিক আমি জানিনা। বিষয়টি খুব দুর্ভাগ্যজনক। বিএনপি বিক্ষোভের ডাক দিয়েছে এই বিক্ষোভ কার বিরুদ্ধে? আদালতের বিরুদ্ধে বিক্ষোভের ডাক দিয়েছে বিএনপি? বেগম জিয়ার জামিন চেয়েছে আদালতের কাছে, আদালত জামিন নামঞ্জুর করেছে। এমন অবস্থায় বিক্ষোভ করেছে আদালতের বিরুদ্ধে।

তিনি আরো বলেন, এখানে সরকার আর আদালতকে গুলিয়ে ফেলতে চায় বিএনপি। জামিন পেলে আদালত দিয়েছে না পেলে সরকার প্রভাবিত করেছে। এ ধরনের বিষয়গুলো তারা বারবার বলে আসছে। তারা বিক্ষোভ দিতে পারে কিন্তু এই বিক্ষোভ সরকারের বিরুদ্ধে নয়, এ বিক্ষোভ আদালতের বিরুদ্ধে।

কেরানীগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান শাহীন আহমেদের নামে বিভিন্ন দুর্নীতি অপকর্ম উল্লেখ করে পোস্টার ছাপিয়ে গণপরিবহনের পেছনে লাগিয়ে দেয়া হয়েছে সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, যেদিন থেকে শুদ্ধি অভিযান শুরু হয়েছে ঠিক সেইদিন থেকেই সন্ত্রাসী-চাঁদাবাজি দুনীর্তিবাজরা নজরদারিতে আছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যে টার্গেট নিয়েছেন, সেই টার্গেট অ্যাচিভ না হওয়া পর্যন্ত এ অভিযান চলবে। যার কথাই বলেন, বা যেই হোক না কেনো, এইসব নাম অভিযানের আওতায় আছে এবং এরা নজরদারিতে আছেন। দুর্নীতির সঙ্গে যারা জড়িত তারা কেউই রেহাই পাবে না। বিতর্কিত কর্মকাণ্ড, সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড, এসবের সঙ্গে যারাই জড়িত তারা নজরদারিতে আছে। দাগী সন্ত্রাসী, চিহ্নিত চাঁদাবাজ, দুর্নীতিবাজ ,চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী, চিহ্নিত অপকর্মকারি এদের বিরুদ্ধে শেখ হাসিনার শুদ্ধি অভিযান চলবে।

আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠনের সম্মেলন করা হয়েছে কিন্তু এখন পর্যন্ত কোনো সহযোগী সংগঠনের পূর্ণাঙ্গ কমিটি করা হয়নি সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, সকল সহযোগী সংগঠন পূর্ণাঙ্গ কমিটি করে জমা দিয়েছে শুধু যুবলীগ বাদে। এখানে সহযোগী সংগঠনের কোনো দোষ নেই সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের জন্য তাদেরকে টিম ওয়ার্ক করে বিভিন্ন জায়গায় কাজে নিয়োজিত করা হয়েছিল। যার কারণে তাদের হাতে কোন সময় ছিল না।

কাদের বলেন, মুজিববর্ষ শুরু হওয়ার আগে যার যার পূর্ণাঙ্গ কমিটি করে জমা দিবে। এবিষয়ে তাদের সাথে আমার (ওবায়দুল কাদের) কথা হয়েছে। যারা পূর্ণাঙ্গ কমিটি করতে এখনো নামের তালিকা জমা দেয়নি তারা খুব শীঘ্রই দিয়ে দিবে। পূর্ণাঙ্গ কমিটি হওয়ার পরেই যুবলীগের সিটি কনফারেন্স হবে এপ্রিল মাসে। এক্ষেত্রে শুধু যুবলীগ বাকি আছে। মহিলা আওয়ামী লীগ ও যুব মহিলা লীগের সম্মেলন বাকি আছে। এপ্রিল মাসে হতে পারে এ জন্য তাদেরকে প্রস্তুতি নেয়ার জন্য বলা হয়েছে। সংবাদ সম্মেলনে আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক আব্দুস সবুর, উপদপ্তর সম্পাদক সায়েম খান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

এই বিভাগের আরো খবর


WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com