web stats প্রতি তিনজনে একজন লিভার রোগে আক্রান্ত হচ্ছে

রবিবার, ১২ জুলাই ২০২০, ২৮ আষাঢ় ১৪২৭

প্রতি তিনজনে একজন লিভার রোগে আক্রান্ত হচ্ছে

দেশে প্রতি তিনজনে একজন লিভার রোগে আক্রান্ত বলে জানিয়েছেন লিভার বিশেষজ্ঞরা। অথচ এ বিষয়ে বিশেষজ্ঞ আছেন একশ’জনেরও কম।

বাংলাদেশে এক কোটি মানুষ ক্রনিক হেপাটাইটিস এবং সাড়ে ৪ কোটি মানুষ ফ্যাটি লিভার রোগে আক্রান্ত।

অর্থাৎ প্রতি তিনজনের একজন লিভার রোগে আক্রন্ত। আর বর্তমানে দেশে লিভার বিশেষজ্ঞ আছেন একশ’জনেরও কম। সে হিসাবে প্রতি ২০ লাখ লিভার রোগীর জন্য বিশেষজ্ঞ মাত্র একজন।

হেপাটোলজি সোসাইটির সভাপতি অধ্যাপক মবিন খানের গবেষণাপত্র থেকে এসব তথ্য জানিয়ে সম্মেলনে আরও বলা হয়, উন্নত বিশ্বের মতো বাংলাদেশেও আর্থসামাজিক অবস্থা পরিবর্তনের সঙ্গে লিভার রোগের প্রাদুর্ভাবে বিবর্তন হচ্ছে। যার কারণে লিভারসংক্রান্ত সংক্রামক ব্যাধির প্রবণতা থেকে অসংক্রামক ব্যাধির উচ্চ প্রাদুর্ভাবে বিবর্তিত হচ্ছে।

এতে বাংলাদেশের সাধারণ মানুষ উভয় ধরনের লিভার রোগের প্রবণতার মুখোমুখি হচ্ছে। এ ছাড়া দেশের প্রতিটি নগর হেপাটাইটিস ‘ই’ ভাইরাসের সাময়িক মহামারির ঝুঁকিতে আছে। সেটা মোকাবেলায় বাংলাদেশ এখনও প্রস্তুত নয়।

লিভার রোগের এমন প্রবণতা মোকাবেলার জন্য দেশে একটি লিভার ইন্সটিটিউট দরকার। সঙ্গে এক হাজার লিভার বিশেষজ্ঞ প্রয়োজন। সংবাদ সম্মেলনে ডা. শাহিনূল আলম বলেন, আগে দেশে সংক্রামক রোগ বেশি ছিল। এখন সেটা কমে অসংক্রামক রোগ বাড়ছে। এর মধ্যে একটি হল ফ্যাটি লিভার রোগ, যা দিন দিন বাড়ছে।

ডা. আবু সাইদ বলেন, বাংলাদেশ থেকে প্রতি মাসে ৪০০ জন লিভার রোগী ভারতে গিয়ে চিকিৎসা করান। কিন্তু এ চিকিৎসা আমরা দেশে বসেই করাতে চাই। আগে লিভার ট্রান্সফার করাতে এক কোটি টাকা লেগে যেত। এখন ভারতে ২৫ লাখ রুপির দরকার হয়- যা দেশে করা গেলে ২০ লাখ টাকা খরচ হবে।

এ দিন সম্মেলনের বৈজ্ঞানিক অধিবেশন অনুষ্ঠিত হয়। এতে হেপাটাইটিস ‘বি’ ভাইরাস নির্মূল, হেপাটাইটিস ‘সি’ ভাইরাস নিরাময়, ফ্যাটি লিভার প্রতিরোধ, শিশু ও গর্ভবতি মা’দের লিভার রোগ চিকিৎসা সম্পর্কে আন্তর্জাতিক লিভার বিশেষজ্ঞরা আলোচনা করেন।

এতে অধ্যাপক মবিন খানের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন জাতীয় অধ্যাপক ব্রিগেডিয়ার (অব.) এমএ মালিক, বিশেষ অতিথি ছিলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিসি অধ্যাপক নজরুল ইসলাম।

এ ছাড়া আন্তর্জাতিক লিভার বিশেষজ্ঞদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন অস্ট্রেলিয়ার অধ্যাপক কুমার বিশ্বনাথান, ফ্রান্সের রেলোকা পাইস, সিঙ্গাপুরের প্রফেসর লিম সিং, যুক্তরাজ্যের প্রফেসর ইমানোয়েল সোসাজ্জিস, প্রফেসর অনীল ধাওয়ান, ডা. অনীতা ভার্মা, ডা. অনীতা ব্যানার্জি, জাপানের হিরানাও অকোবো, ভারতের প্রফেসর নাগেশ্বর রেড্ডি ও মিশরের অধ্যাপক আবদুল ওয়াহাব আলী।

এই বিভাগের আরো খবর


WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com