web stats প্রেমিকার সঙ্গে দেখা করতে গিয়ে গণধোলাই

শনিবার, ১৯ অক্টোবর ২০১৯, ৪ কার্তিক ১৪২৬

প্রেমিকার সঙ্গে দেখা করতে গিয়ে গণধোলাই

প্রেমিকার সঙ্গে দেখা করতে গিয়ে রাজশাহীর পুঠিয়া উপজেলায় গ্রামবাসীর গণধোলায়ের শিকার হয়েছেন এক প্রেমিকসহ তার দুই বন্ধু। গতকাল রোববার রাতে উপজেলার ভালুকগাছি হাড়গাতি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে গভীর রাতে পুলিশ তাদের উদ্ধার করতে গেলে পুরো গ্রামে উত্তেজনা ছড়িয়ে পরে।

এ সময় মসজিদে মাইকিং করে উদ্ধারকারী পুলিশদের প্রায় ছয় ঘণ্টা অবরুদ্ধ করে রাখা হয়। আজ সোমবার সকালে ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

ভালুকগাছি ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) চেয়ারম্যান তাকবির হাসান বিষয়টি নিশ্চিত করেন। তিনি জানান, ধোপাপাড়া গ্রামের হাতেম আলীর ছেলে ও রাজশাহী কলেজের ইতিহাস বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র হায়দার আলীর সঙ্গে হাড়গাতি গ্রামের এক দশম শ্রেণির ছাত্রীর সম্প্রতি মুঠোফোনে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে।

হায়দার তার প্রতিবেশী দুই বন্ধুকে নিয়ে রোববার রাতে ওই প্রেমিকার বাড়ির কাছে যান। এ ঘটনায় পুলিশ ও গ্রামবাসীদের মধ্যে অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেছে বলে শুনেছেন ইউপি চেয়ারম্যান। ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী রাশেদুল ইসলাম নামে এক ব্যক্তি বলেন, ‘দীর্ঘদিন থেকে ওই ছেলে ও মেয়ে রাতের আধারে মেলামেশা করত। বিষয়টি গ্রামের লোকজন টের পেয়ে গতরাতে হাতেনাতে তাদের আটক করে।’

রাশেদুল ইসলাম আরও বলেন, ‘আটককৃত তিনজনকে গ্রামবাসীরা মারধর করে পায়ে লোহার রড় ঢুকিয়ে দেয়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে আসলে গ্রামের লোকজন বিষয়টি চেয়ারম্যানের মাধ্যমে গ্রামেই সমাধান করবে বলে তাদের চলে যেতে বলেন।’

এ বিষয়ে পুঠিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বলেন, ‘গ্রামবাসীদের বাধার কারণে আহতদের সকালে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় ওই মেয়ের বাবা বাদী হয়ে থানায় একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেছেন।’

ওসি আরও বলেন, ‘পুলিশের কাজে বাধা দেওয়ায় চারজনের নাম উল্লেখ করে ও আরও ১৫ থেকে ২০ জনকে অজ্ঞাতনামা আসামি করে আলাদা একটি মামলা করা হয়েছে।’

এই বিভাগের আরো খবর


WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com