web stats সরকারি তিন লাখ শূন্য পদে নিয়োগের নির্দেশ

মঙ্গলবার, ২০ অক্টোবর ২০২০, ৪ কার্তিক ১৪২৭

সরকারি তিন লাখ শূন্য পদে নিয়োগের নির্দেশ

তিন লাখেরও বেশি সরকারি, আধা-সরকারি ও স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠানের শূন্য পদে দ্রুত নিয়োগের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সচিব সভা থেকে এ সিদ্ধান্ত দেয়া হয়েছে বলে মন্ত্রণালয় ও বিভাগের কয়েকজন সচিবের বরাত দিয়ে দেশের শীর্ষস্থানীয় দৈনিকে এ খবর প্রকাশ করা হয়েছে।

সম্প্রতি প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে বিভিন্ন মন্ত্রণালয়, বিভাগ, দপ্তর ও সংস্থায় শূন্য পদে দ্রুত নিয়োগে শূন্য পদের তথ্য এবং পদ পূরণের জন্য কর্মপরিকল্পনা চাওয়া হয়। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের মুখ্য সচিব মো. নজিবুর রহমান স্বাক্ষরিত এ-সংক্রান্ত চিঠি গত ৪ মার্চ সংশ্নিষ্ট মন্ত্রণালয়, বিভাগ, দপ্তর ও সংস্থায় পাঠানো হয়। এ ছাড়া ২০১৭ সালের সচিব সভায় শূন্য পদ দ্রুত পূরণের নির্দেশনা দিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

সর্বশেষ জাতীয় নির্বাচনের আগে সচিব সভায় শূন্য পদ পূরণে প্রধানমন্ত্রীর সেই নির্দেশনা দ্রুত বাস্তবায়নের জন্য প্রত্যেক সচিবকে তাগিদ দেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব। এ ছাড়া গত ২৫ জানুয়ারি জাতির উদ্দেশে দেওয়া ভাষণে প্রধানমন্ত্রী আগামী পাঁচ বছরের মধ্যে এক কোটি ২৮ লাখ কর্মসংস্থান সৃষ্টির প্রতিশ্রুতি দেন।

জানা গেছে, চলতি বছরেই তিন লাখ জনবল নিয়োগের প্রস্তুতি নিচ্ছে সরকার। কয়েক মাসের মধ্যেই এসব নিয়োগের সার্কুলার দেয়া হবে। সরকারি, আধা সরকারি ও স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠানের বিভিন্ন শূন্য পদের বিপরীতে এসব জনবল নিয়োগ দেয়া হবে।

সম্ভাব্য নিয়োগের মধ্যে প্রায় পাঁচ হাজার লোক নিয়োগ হবে সরকারি প্রথম শ্রেণির কর্মকর্তা পদে। এ জন্য শিগগিরই ৪১তম বিসিএসের সার্কুলার হবে। ইতিমধ্যে ৪০তম বিসিএসের সার্কলার জারি হয়েছে।

তিন লাখ নিয়োগের জন্য যেসব খাত বাছাই করা হয়েছে তার মধ্যে রয়েছে প্রথম শ্রেণির পদে ৫ হাজার, আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীতে ৬০ হাজার, শিক্ষা খাতে ৪০ হাজার, স্বাস্থ্য খাতে ৩৫ হাজার, ব্যাংকিং খাতে ২০ হাজার অন্যতম। সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, আগামী জুন মাস থেকে এই নিয়োগ প্রক্রিয়া শুরু হবে। বিভিন্ন মন্ত্রণালয় ও বিভাগের শূন্য পদের তালিকা তৈরি করা হচ্ছে। ওইসব পদের মধ্যে ১০ শতাংশ শূন্য পদ রেখে বাকি পদে জনবল নিয়োগ দেয়া হবে।

এ প্রসঙ্গে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের সচিব ফয়েজ আহমেদ কয়েক দিন পূর্বে সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছিলেন, পদ শূন্যের ভিত্তিতে সরকারি প্রতিষ্ঠানগুলো জনবল নিয়োগ দেয়।

শিক্ষিত বেকার যুবকদের কর্মসংস্থানে সরকারি সংস্থাগুলোর শূন্য পদে লোক নিয়োগ চলমান প্রক্রিয়া। কিন্তু বর্তমানে কিছু কিছু খাতে শূন্য পদের সংখ্যা বেশি। এটি পূরণে উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

এই বিভাগের আরো খবর


WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com