web stats দাড়িওয়ালা ছবি দিয়ে সাকিবের 'জুমা মুবারক' পোস্টে মন্তব্যের ঝড়

বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০১৯, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬

দাড়িওয়ালা ছবি দিয়ে সাকিবের ‘জুমা মুবারক’ পোস্টে মন্তব্যের ঝড়

গাড়িতে বসে আছেন তিনি। মুখে বড় দাড়ি। একটা ক্লোজ শট সেলফি। এ ছবি দিয়ে সবাই ‘জুমা মুবারক’ জানিয়েছেন ক্রিকেট ক্রেজ সাকিব আল হাসান। এই ক্রিকেট তারকার কোনো পোস্ট মানেই তা ভাইরাল। এটাও তাই। তবে এ ছবিতে কিছু বিরূপ মন্তব্য এসেছে। মূলত তার এই দাড়ি নিয়ে কমেন্টের ঘরে আলোচনা-সমালোচনা ঝড় বইছে।

এর আগে গত ২৩ তারিখ চেন্নাইয়ের বিপক্ষে ম্যাচে সাকিবের মুখে কোনো দাড়ি না দেখা গেলেও আজ এত বড় দাড়িসহ ছবি দেওয়াতে অনেকেই প্রশ্ন তোলেন।

ছবিটি আপলোড দেওয়ার ঘণ্টা পার না হতেই ভাইরাল হয়ে যায়। সাকিবের এই ছবি নিয়ে ফেসবুক ব্যবহারকারীরা সমালোচনা করলেও অনেকে আবার প্রশংসা করছেন।

অনেকেই এই দাড়িকে নকল দাড়ি বলে সমালোচনা করেছেন,অনেকে মনে করছেন সম্প্রতি দাড়ি নিয়ে বিবিসির অবমাননাকর প্রতিবেদনের জবাব দিয়েছেন সাকিব। তবে বেশিরভাগেরই প্রশ্ন-স্বল্প সময়ে দাড়ি এত বড় হলো কীভাবে?

রাকিব আল হাসান নামে একজন লেখেন, ‘১৫ এপ্রিলে কেমন ছবি দিলেন, আজকে ২৬ এপ্রিলে এই ছবি! ক্যমনে ম্যান? টাকা দিয়ে দাড়িও বড় করা যায় নাকি।’

সোহেল রানা নামে একজন প্রশংসা করে লিখেন, ‘ভাই দাড়িতে অনেক অনেক সুন্দর লাগে। এবার দাড়ি রেখে দেন।’

মাজেদ আল হাসান লিখেছেন, বিবিসির নিউজের প্রতিবাদে উনি ছবিটা দিয়েছেন বলে আশা রাখি। একজন মুসলিম হিসাবে আমাদের প্রত্যেকে ইসলাম বিরোধি কর্মকাণ্ডের প্রতিবাদ করা ইমানদারির পরিচায়ক।

আলোড়ন বিশ্বাস নামে একজন নকল দাড়ি উল্লেখ করে লিখেন, ‘প্রথমত এটা ফেক দাড়ি। কারণ তিনদিন আগের খেলাতেও আপনার দাড়ি ছিল না। ছবিটা জুম করলেই ফেক দাড়ি দেখা যায়…আর এই দাড়ি তে আপনাকে জঘন্য লাগছে আপনার জীবনের সব থেকে জঘন্য ছবি।’

কামরুল হাসান নামে একজন কড়া সমালোচনা করে লিখেন, ‘দাড়ি লাগাইয়া ফাইজলামি করা ঠিক হয় নাই, অরিজিনালি দাড়ি রাখেন পারলে। গত ২ দিন আগে আপনার আইপিএল খেলা দেখলাম দাড়ি নাই, আজকে দাড়ি লাগাইয়া জুম্মা মোবারক জানাইতেছেন লজ্জা লাগে আপনার অভিনয় দেখে।’

নাজমুল হাসান নামে একজন প্রশংসা করে লেখেন, ‘আহ। কি যে সুন্দর লাগছে।

তবে মোট কথা হলো-দাড়ি যদি কারও সৌন্দর্য নষ্ট কিংবা কমাতো তাহলে আল্লাহ পাক নবীজিকে (সা.) দাড়ি দিতেন না। আল্লাহ আমাদের সকলকে সুন্নত পালনের তৌফিক দান করুক।’

মাহমুদুল হাসান শুভ নামে একজন আশ্চর্য প্রকাশ করে লিখেন, ‘কেমনে সম্ভব, শেষ আইপিএল ম্যাচে দেখলাম দাড়ি কত ছোট আর ২ দিনের ভেতর এত বড় হয়ে গেছে। সাকিব ভাই আপনার হরমোন এর পাওয়ার তো অনেক।’

শাহজালাল নিজামী নামে একজন লিখেন, ‘রিয়েল দাড়ি হলে বলব মাশা আল্লাহ, আলহামদুলিল্লাহ। আর যদি ফেক হয়,তবে আমার মনে হয় উনি এটার মাধ্যমে ট্রাই করে দেখছেন যে মানুষ কীভাবে নিবে উনাকে, যদি একদিন উনি সত্যিই এভাবে রাখেন।’

নিজামুল বশির রাব্বি নামে একজন প্রশ্ন রেখে বলেন, ‘তিন দিন আগের খেলায় দেখলাম দাড়ি নাই আজ এত বড় দাড়ি আসলো কোথা থেকে।’

ইব্রাহিম খলিল দিপু প্রশংসা করে লেখেন, ‘সাকিব ভাই খুশি হলাম আপনার এমন পরিবর্তন দেখে। কিন্তু ভাবিকেও কি আপনার মত ইসলামি নিয়ম-কানুনের ভেতর নিয়ে আসা যায় না।’

এই বিভাগের আরো খবর