web stats বেনাপোলে মাতৃভাষা দিবসে বসেছিলো দুই বাংলার মিলনমেলা

রবিবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১২ আশ্বিন ১৪২৭

বেনাপোলে মাতৃভাষা দিবসে বসেছিলো দুই বাংলার মিলনমেলা

ইয়ানূর রহমান : বেনাপোল ও পেট্রাপোল সীমান্তের শূন্যরেখায় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে ভাষা শহীদদের প্রতি স্মরণ করে বসেছিল দুই বাংলার মানুষের মিলনমেলা।

বৃহস্পতিবার সকাল নয় টায় শুন্যরেখার অস্থায়ী শহীদ মিনারে দুই বাংলার রাজনৈতিক, সামাজিক ও বিশিষ্টজনরা ফুল দিয়ে ভাষা শহীদের প্রতি শ্রদ্ধার মধ্য দিয়ে দিনের অন্যান্য অনুষ্ঠান শুরু করে।

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মঞ্চে আলোচনা আর দেশাক্তবোধক নাচে-গানে মেতে ওঠেন দুই বাংলার হাজারো মানুষ। দুই বাংলা আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উদযাপন কমিটির আয়োজনে সকাল থেকে শুন্যরেখায় আসতে থাকে লাখো ভাষাপ্রেমিরা।

দিন ব্যাপি দুই দেশের জাতীয় সংগীতের মধ্য দিয়ে শুরু হয়ে অতিথিদের ফুল দিয়ে বরণ, উপহার সামগ্রী প্রদান, রক্তদান কর্মসূচি, ক্রেস্ট প্রদান, উত্তরীয় প্রদান, আলোচনা সভা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মধ্যে দিয়ে শেষ হয়।

প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন দুই বাংলার ২ বিশিষ্ঠ জন। বাংলাদেশ সরকারের স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রনালয়ের প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য্য ও ভারতের পশ্চিমবঙ্গের খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক।

বাংলাদেশের পক্ষে আরো উপস্থিত ছিলেন যশোর ৮৫-১ শার্শা আসনের সংসদ সদস্য শেখ আফিল উদ্দিন এমপি, বেনাপোল কাস্টমস হাউসের কমিশনার বেলাল হোসাইন, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সিরাজুল হক মঞ্জু, অলহাজ নুরুজ্জামান, আসিফ-উদ-দৌলা অলক, মুছা মাহমুদ, বিশিষ্ঠ সাংবাদিক মাহাবিুব আলম লাভলু, শেখ কাজিম উদ্দিন, আজিজুল হক, আনিসুর রহমান প্রমুখ।

ভারতের পক্ষে আরো উপস্থিত ছিলেন, বনগাঁ লোকসভার সাংসদ মমতা ঠাকুর, রাজ্যসভার বিধায়ক বিশ্বজিৎ দাস, উত্তর ২৪ পরগনার জেলা সভাধিপতি ্রশ্রীমতি বীনা মন্ডল, বনগাঁ পৌর মেয়র শংকর আঢ্য, সাবেক মেয়র জোসনা আঢ্য প্রমুখ।

অনুষ্ঠানের একুশের মঞ্চে জি-বাংলা ‘সা রে গা মা পা’ কাঁপানো সঙ্গীত শিল্পি মাঈনুল আহসান নোবেল গান পরিবেশন করেন।

এই বিভাগের আরো খবর


WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com