web stats বিবাহ বার্ষিকীর স্ত্রীকে সেরা উপহারটা দিলেন রোহিত শর্মা

সোমবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৩ আশ্বিন ১৪২৭

বিবাহ বার্ষিকীর স্ত্রীকে সেরা উপহারটা দিলেন রোহিত শর্মা

দুটো রান শেষ করেই শূন্যে লাফ। আকাশের দিকে ছুড়ে দিলেন মুষ্টিবদ্ধ হাত। তার পরই ক্যামেরায় ধরা পড়ল গ্যালারি। কখনও মাঠ, কখনও গ্যালারি। গ্যালারিতে ছলছল চোখে দাঁড়িয়ে রীতিকা শর্মা। মাঠে রোহিতের উৎসব।

রোহিত শর্মার ডবল সেঞ্চুরি হতেই ক্যামেরা প্যান হয়ে ঘুরে গেল গ্যালারিতে। রোহিতের স্ত্রী। এক আঙুলে চোখের জল মুছে পুরো গ্যালারির সঙ্গে হাত মেলালেন। একরাশ উৎকণ্ঠা নিয়ে প্রায় দমবন্ধ করে বসে ছিলেন গ্যালারিতে। ২০০ হতেই যেন ভেঙে গেল সব বাধ। আবেগ ধরে রাখতে পারলেন না রীতিকা।ম্যাচ শেষে রোহিত শর্মা বলেন, ‘‘আমি খুশি আমাদের বিশেষ দিনে আমার স্ত্রী মাঠে ছিল। আমি নিশ্চিত এই উপহার ওর পছন্দ হবে। ও আমার শক্তি। সব সময় আমার পাশে থাকে। সব সময় চাপের মধ্যে থাকতে হয় সেই সময় কাছের মানুষ পাশে থাকাটা অবশ্যই স্পেশাল।’’

আর উল্টোদিকে তখন মাঠ থেকেই স্ত্রীকে বিবাহ বার্ষিকীর সেরা উপহারটা দিয়ে দিলেন রোহিত শর্মা। বিরাট কোহালির অবর্তমানে তাঁর কাঁধেই দলের দায়িত্ব। শুরুটা ভাল হয়নি। শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে ধর্মশালায় প্রথম ওয়ান ডে-তে খুব খারাপভাবে হারতে হয়েছে। মোহালির আইএস বিন্দ্রা স্টেডিয়ামে ২০০ করেই নিজের আঙুলে ঠোট ছুঁয়ে স্ত্রীকেই বার্তাটা দিলেন। গ্যালারিতে তখন আনন্দে উৎসব করতেও ভুলে গিয়েছেন রীতিকা।বুধবার ১৫৩ বলে ২০৮ রানের অপরাজিত ইনিংস খেললেন রোহিত শর্মা। যে ইনিংস সাজানো ছিল ১৩টি বাউন্ডারি, ১২টি ওভার বাউন্ডারি দিয়ে। শিখর ধবনের সঙ্গে ১১৫ রানের ও শ্রেয়াস আয়ারের সঙ্গে ২১৩ রানের পার্টনারশিপও এল রোহিতের ব্যাট থেকে।

দুটো ডবল সেঞ্চুরি নিয়ে খেলতে নেমেছিলেন রোহিত। তিন নম্বর ডবল সেঞ্চুরিটি করে ফেললেন ১৫১ বলে। শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে কোনও ভারতীয় অধিনায়কের এটাই সর্বোচ্চ রান। রোহিত বলেন, ‘‘এটা আমাদের দ্বিতীয় বিবাহ বার্ষিকী। তার থেকেও বড় আমরা জিতেছি। আমরা নিশ্চিত ছিলাম জয়ের জন্য যা লাগবে আমরা তা করতে পারব। শেষ পর্যন্ত আমরা সেটা করেছি। ভাইজাগে এই জয়ের ধারা ধরে রাখতে হবে।’’

এই বিভাগের আরো খবর


WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com