web stats হেরে যাওয়ার পর কাকে দুষলেন সাকিব?

বুধবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৫ আশ্বিন ১৪২৭

হেরে যাওয়ার পর কাকে দুষলেন সাকিব?

বিপিএলের ফাইনালে এমন এক ব্যাটসম্যানের ক্যাচ ছেড়েছেন সাকিব, যে কিনা একাই জিতিয়ে দিয়েছেন রংপুর রাইডার্সকে। টি-টুয়েন্টির সেরা ব্যাটসম্যান ক্রিস গেইলের ক্যাচ ছাড়ার মাশুল দিতে হয়েছে তার দল ঢাকাকে। ২২ রানে জীবন পাওয়ার পর গেইল গুনেগুনে মেরেছেন ১৮টি ছক্কা। তার ৬৯ বলে অপরাজিত ১৪৬ রানের ইনিংসের কাছেই হারতে হয়েছে গত আসরের চ্যাম্পিয়নদের। হারের পর তাই নিজেকেই দুষলেন ঢাকার অধিনায়ক।

‘এ ম্যাচে বড় ক্ষতি ছিল আমার ক্যাচ মিস। বোলিংটাও সেভাবে ভাল করতে পারিনি। গেইল যখন ব্যাটিং করছিল, আমরা যথেষ্ট ভাল জায়গায় বল ফেলতে পারিনি। হয়তবা আরও এক-দুইটা সুযোগ পেলে কিছু করতে পারতাম।’

শুরুতে আগের ম্যাচের সেঞ্চুরিয়ান জনসন চার্লসের উইকেট হারালে ধীর গতিতে আগান গেইল-ম্যাককালাম জুটি। রংপুর শুরুর ১০ ওভারে তোলে মাত্র ৬৩ রান। শেষ ১০ ওভারে ১৪৩ রান তুললে রংপুরের পুঁজি দাঁড়ায় ২০৬ রানে। যাতে ম্যাককালামের অবদান ৫১। দুজনের অবিচ্ছিন্ন জুটিতে আসে ২০১ রান। ঢাকা শেষ পর্যন্ত করতে পারে ১৪৯ রান। ৫৭ রানে জয় তুলে নেয়া রংপুরের ওপেনিংয়ে নামা গেইল আউট হননি।

সেসময় মাঠে কতটা অসহায় ছিলেন সাকিব সেটিই বোঝালেন, ‘ও যদি ব্যাট করতে থাকে, যেকোনো দলের জন্যই হ্যাম্পার হয়। ও শুরুতে আউট হয়ে গেলে তো টেনশন থাকত না। যেহেতু ২০ ওভার ব্যাট করেছে, পুরো ২০ ওভারই টেনশন ছিল।’

সুনীল নারিনের বলে কাভারে শক্তি প্রয়োগ করে ড্রাইভ খেলেছন গেইল। প্রচণ্ড বেগে আসা বলটি তালুবন্দী করতে ব্যর্থ হন সাকিব। ক্যাচ হাতছাড়া করে জন্য যেন তাই আক্ষেপ মিটছেই না সাকিবের, ‘ওই সময়ে ক্যাচ ধরতে পারলে রান ১৪০-১৩০এর বেশি হত না! কারণ উইকেট ব্যাটিংয়ের জন্য অতটা সহজ ছিল না। যেহেতু আমরা অনেক ব্যাটসম্যান নিয়ে খেলেছি, আমাদের বিশ্বাস ছিল ১৫০-১৬০ পর্যন্ত গেলে, আমরা ওই রান করতে পারব। ওদের বোলিং অ্যাটাক অত ভাল না।’

এই বিভাগের আরো খবর


WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com