web stats যেকোনো মুহূর্তে ইসরাইলে হামাস ও ইরানের যৌথ হামলা!

বুধবার, ২১ অক্টোবর ২০২০, ৫ কার্তিক ১৪২৭

যেকোনো মুহূর্তে ইসরাইলে হামাস ও ইরানের যৌথ হামলা!

ইরানের ইসলামি বিপ্লবী গার্ড বাহিনী বা আইআরজিসি’র আল-কুদস ব্রিগেডের কমান্ডার মেজর জেনারেল কাসেম সোলায়মানি বলেছেন, ফিলিস্তিনি জনগণের প্রতি তেহরানের সমর্থন অব্যাহত থাকবে।

ফিলিস্তিনের ইসলামি প্রতিরোধ আন্দোলন হামাসের সামরিক শাখা ইজ্জেদ্দিন আল-কাসসামের কমান্ডারের সঙ্গে টেলিফোন আলাপে তিনি এ সমর্থনের কথা নতুন করে নিশ্চিত করেন। ফোনালাপে আইআরজিসি’র শীর্ষ পর্যায়ের কমান্ডার মধ্যপ্রাচ্যের প্রতিটি প্রতিরোধ আন্দোলনকে পবিত্র বায়তুল মুকাদ্দাস ও আল-আকসা মসজিদ রক্ষার জন্য তাদের প্রস্তুতি জোরদারের আহ্বান জানান।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ফিলিস্তিনের বায়তুল মুকাদ্দাস শহরকে ইসরাইলের রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতি দেয়ার পর মধ্যপ্রাচ্যে ছড়িয়ে পড়া প্রচণ্ড উত্তেজনার মধ্যে জেনারেল সোলায়মানি এ আহ্বান জানালেন।

এর আগে গতকাল হামাসের সামরিক শাখা ইজ্জেদ্দিন কাসসাম ব্রিগেড ইসরাইলের বিমান হামলার বিরুদ্ধে প্রতিশোধ নেয়ার অঙ্গীকার করেছে। গত শুক্রবার অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকায় হামাস যোদ্ধাদের ওপর ইসরাইল কয়েক দফা হামলা চালায় এবং এতে হামাসের দুই যোদ্ধা শহীদ ও ১৪ জন আহত হন।

কাসসাম ব্রিগেড এক বিবৃতিতে বলেছে, “শত্রুরা চুক্তির নিয়ম লঙ্ঘন করে গাজার ওপর যে হামলা চালিয়েছে তার মূল্য পরিশোধ করতে বাধ্য হবে।” হামাস আরো বলেছে, “আগামী দিনগুলোতে প্রমাণ হবে যে, শত্রুরা মারাত্মক ভুল করেছে এবং তারা হামাসের প্রতিশ্রুতি দেখতে পাবে।”
সূত্র : পার্স টুডে

জেরুসালেমকে ইসরাইলের রাজধানী করা সহজ হবে না : এরদোগান

মিডলইস্ট মনিটর

তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়েব এরদোগান বলেন, ওআইসির বৈঠকের মাধ্যমে আমরা দেখিয়ে দেবো যে, জেরুসালেমকে ইসরাইলি রাজধানী স্বীকৃতির বাস্তবিক প্রয়োগ সহজ হবে না। আগামীকাল ১৩ ডিসেম্বর জেরুসালেম ইস্যুতে জরুরি বৈঠকে বসতে যাচ্ছেন ওআইসির নেতারা। ১৯৬৯ সালে গঠিত এই সংস্থাটিতে ৫৭টি মুসলিম রাষ্ট্র রয়েছে।

জেরুসালেম বিষয়ে আলোচনা করতে ওআইসির জরুরি বৈঠক ডাকেন এরদোগান। এ ছাড়া ফরাসি প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ ও ক্যাথলিক ধর্মগুরু পোপ ফ্রান্সিসের সাথেও ফোনে কথা বলেছেন তিনি। এরদোগান জানান, আমরা সবাইকে জানিয়েছি যে, মার্কিন সিদ্ধান্ত আন্তর্জাতিক আইন, কূটনীতি বা মানবিকতাকে সমর্থন করে না।

বিশ্বনেতাদের সাথে আলোচনায় ১৯৬৭ সালের সীমান্ত অনুযায়ী পূর্ব জেরুসালেমকে রাজধানী করে একটি সার্বভৌম ফিলিস্তিন রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার ওপর জোর দেন তুর্কি প্রেসিডেন্ট। তিনি বলেন, জেরুসালেম মুসলিম, ইহুদি ও খ্রিষ্টানদের পবিত্র শহর; এ ব্যাপারে মুসলিম উম্মাহ ঐক্যবদ্ধÑ এই বার্তা পৌঁছে দেয়ার জন্য এ সম্মেলন গুরুত্বপূর্ণ।

এই বিভাগের আরো খবর


WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com