counter বাংলাদেশ ছাত্রলীগ গ্রীস শাখার উদ্যোগে ছাত্রলীগের ৭৩তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত

মঙ্গলবার, ১৯শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ৩রা কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

বাংলাদেশ ছাত্রলীগ গ্রীস শাখার উদ্যোগে ছাত্রলীগের ৭৩তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ
নানা আয়োজনে গ্রীসে দেশের ঐতিহ্যবাহী ও দক্ষিণ এশিয়ার সবচেয়ে এবং প্রাচীনতম ছাত্রসংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের ৭৩তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপিত হয়েছে।

এ উপলক্ষে আলোচনা সভা ও প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর কেক কাটা হয়। এ সময় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি এমএ সামাদ মাতব্বর, বিশেষ অতিথি গ্রীস আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি শেখ আলামিন, গ্রীস আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক রাজু খান, গ্রীস আওয়ামীলীগ এর সাংগঠনিক সম্পাদক সোহেল হাওলাদার, গ্রীস যুবলীগের আহ্বায়ক কামরুল হাসান, আহবায়ক সদস্য আশিকুর রহমান, আহবায়ক সদস্য কিরণ মাতুব্বর, এথেন্স মহানগর যুবলীগের আহবায়ক শাকের আহমেদ, যুগ্ম আহবায়ক জাবেদ মাহমুদ।

আরও উপস্থিত ছিলেন, গ্রীস ছত্রলীগ নেতা নাঈম মাতুব্বর, শীতল বৌদ্ধ, সাউথ হাওলাদার, কামরুল হাসান, বাইজিদ হাওলাদার, মশিউর রহমান টগর, রফিকুল ইসলাম, শাকিল আম্মেদ, তারেক আম্মেদ, নাঈমুর রহমান অনিক, রুবেল আম্মেদ, জাহান আহাম্মেদ, সজিব ইসলাম, জুনায়েদ, সাগর, রেজাউল, ইজাদুর।

সভাপতিত্ব করেন মেহেদি হাসান (হৃদয়)
সঞ্চালনায় আব্দুর রহমান দুর্জয় ও জয়েন উদ্দিন জয়। প্রধান বক্তা ছিলেন আহাম্মেদ মাশেব।

এসময় বক্তারা বলেন, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ আওয়ামীলীগের একটি সহযোগী বা অঙ্গসংগঠন হলেও ছাত্রলীগের জন্ম অনেক আগে। বাংলা, বাঙালির স্বাধীনতা ও স্বাধীকার অর্জনের লক্ষ্যে দেশ ভাগের পর ১৯৪৮ সালের এই দিন (৪ জানুয়ারি) তৎকালীন তরুণ নেতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রেরণা ও পৃষ্ঠপোষকতায় প্রতিষ্ঠিত হয় বাংলাদেশ ছাত্রলীগ। গণতান্ত্রিক অধিকার আদায়ে বাংলাদেশে ছাত্রলীগের গৌরবউজ্জ্বল ভূমিকা পালন করে।

তারা আরও বলেন, ছাত্রলীগের ইতিহাস অনেক পুরনো ইতিহাস। বাংলাদেশ সৃষ্টিরও অনেক পূর্বে ছাত্রলীগের জন্ম হয়েছে। বঙ্গবন্ধু তাঁর নিজ হাতে ছাত্রলীগ কে গড়েছেন। ছাত্রলীগের অনেক সুনাম ও ঐতিহ্য আছে। গণতান্ত্রিক সকল আন্দোলন-সংগ্রামে নেতৃত্ব দিয়েছে এই ছাত্রলীগ এখনও দিয়ে আসছে। ৫২র ভাষা আন্দোলন, ৫৮’র আইয়ুব বিরোধী আন্দোলন, ৬২ এর শিক্ষা আন্দোলন, ৬৯’র গণঅভ্যুত্থান, ৭১’র মহান মুক্তিযুদ্ধসহ সকল গণতান্ত্রিক অধিকার আদায়ের লড়াইয়ে অগ্রণী ভূমিকা পালন করেছে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ। আগামীতেও ছাত্রলীগের সেই সুনাম ও ঐতিহ্য যেন সমুন্নত থাকে সেই দায়িত্ব তোমাদের নিতে। কোনভাবেই যেন সে সুনাম নষ্ট না হয়ে যায় সেদিকে তোমাদের খেয়াল রাখতে হবে। সবাইকে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন রইলো।

এই বিভাগের আরো খবর