counter করোনায় অচল সিরাজগঞ্জের ভিক্ষুক পরিবার

সোমবার, ২৩শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ৯ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

করোনায় অচল সিরাজগঞ্জের ভিক্ষুক পরিবার

নাসিম আহমেদ রিয়াদঃ

করোনায় মানবতার জীবন যাপন করছে রায়গঞ্জ উপজেলার ভিক্ষুক পরিবারগুলো।

মহামারি করোনা ভাইরাসের কারণে সারা বিশ্ব এখন কার্যতঃ লকডাউনে পড়ে আছে। দিন দিন বেড়েই চলেছে করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা। শুধু আক্রান্ত হয়েই শেষ নেই চলছে মৃত্যুর মিছিল।
কর্মমুখি মানুষগুলোর কর্মহীন হয়ে পড়ায় ভিক্ষুক পরিবরগুলোও ভিক্ষা পাওয়া থেকে বঞ্চিত হওয়ায় মানবতার জীবন যাপন শুরু হয়েছে তাদের পরিবারে।
দিন যত গড়াচ্ছে কস্টের মাত্রাও তেমনি বেড়ে উঠছে।

সাধারণ মানুষের পাশা-পাশি পথে বসেছে ভিক্ষুক সমাজ। বিভিন্ন বাধা বিপত্তির কারণে তারা যেতে পারছেন না এক গ্রাম থেকে অন্য গ্রামে। ।
ফলে পূর্বে যে খাদ্য ঘরে সঞ্চয় ছিল তা প্রায় শেষ হয়ে পড়ায় প্রায়ই খেয়ে না খেয়ে দিনানিপাত করছে উপজেলা ভিক্ষুক পরিবারগুলো।

সরেজমিনে উপজেলার বিভিন্ন গ্রামের ভিক্ষুদের নিকট গিয়ে শোনা যায় তাদের দুর্ভোগ দুর্দশার কথা। তারা জানান, এই করোনা ভাইরাসের কারণে তারা আজ এক গ্রাম থেকে অন্য গ্রামে যেতে পারছেন না ফলে তেমন রোজগার নেই। তাছাড়া যারা ভিক্ষা দিয়ে আসছে তারাও এখন অনেক অসহায় অবস্থায় দিনযাপন করায় আগের মত ভিক্ষা দিচ্ছে না বলে নাম প্রকাশ না করার শর্তে জানান এক ভিক্ষুক।

সরকারী ত্রাণ পাওয়ার কথা জানতে চাইলে তারা বলেন, আমরা কম-বেশী স্থানীয় জনপ্রতিনিধির নিকট হতে ত্রাণ পেয়েছি তবে এই ত্রাণ দিয়ে আর কয়দিন চলে।
সরকার এই করোনার সময় মাসিক অনুদানের একটা ব্যাবস্থা করে দিলে কস্ট কিছু কম হবে জানান অনেক ভিক্ষুক।

রায়গঞ্জ উপজেলায় মোট ভিক্ষুক ৬৭৩ জন। তাদের কমবেশি সরকারী সাহায্য সহযোগীতা করা হয়েছে বলে স্থানীয় সমাজ সেবা কর্মকর্তা আমিরুল আলম বলেন।

এ বিষয়ে রায়গঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার মোঃ শামীমুর রহমান বলেন,ভিক্ষুকদের জন্য আলাদা কোন বরাদ্দ নেই তবে জি আর এর বরাদ্দের মধ্য ভিক্ষকদের তালিকা আছে। এর আগেও গ্রামের অসহায়দের তালিকায় তাদের নাম ছিল। আবারও তাদের দেখা হবে।

এই বিভাগের আরো খবর



AllEscortAllEscort