counter অযত্ন আর অবহেলায় পড়ে আছে পল্লী কবি জসীমউদদীনের বাড়ী

মঙ্গলবার, ১৯শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ৩রা কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

অযত্ন আর অবহেলায় পড়ে আছে পল্লী কবি জসীমউদদীনের বাড়ী

ডেস্ক নিউজ : পল্লী কবি জসীমউদদীন। বাংলা সাহিত্যের এক জনপ্রিয় নাম। কবির লেখনীর মাঝে ফুটে উঠেছে গ্রাম-বাংলার জীবন-জীবিকা, শ্রমজীবী, পেশাজীবীসহ সমাজের নানা স্তরের মানুষের কথা। তার কবিতায় দোল খায় প্রকৃতি, নদী, মাঠ, বেঁদে পল্লীসহ অনুপম সব কাব্য গাঁথা। আধুনিক শিল্প চেতনার ছাপও রয়েছে নকশী কাঁথার মাঠ, সোজন বাদিয়ার ঘাটসহ কবির প্রতিটি রচনায়। যার লেখনীতে বাংলা সাহিত্যের ভাণ্ডার সমৃদ্ধ হয়েছে সেই কবির বাড়িটি এখনো পড়ে আছে অবহেলিতভাবে। কবির বাড়িটিকে ঘিরে বিভিন্ন সময় নানা উদ্যোগের কথা শোনা গেলেও তা বাস্তবে রূপ নেয়নি কখনো। অযত্ন আর অবহেলায় পড়ে আছে কবির ব্যবহৃত জিনিসপত্রগুলো। ফলে দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে আসা কবি ভক্ত ও দর্শনার্থীরা হচ্ছে হতাশ।

এদিকে, পল্লী কবি জসীমউদদীনের বাড়িটিকে ঘিরে প্রতি বছর আয়োজন করা হতো ‘জসীম পল্লী মেলা’র। কিন্তু ৫-৬ বছর ধরে অজানা কারণে বন্ধ রয়েছে জসীম মেলা। ফলে জসীম ভক্ত ও স্থানীয়রা হতাশা ব্যক্ত করেছেন। দ্রুতই জসীম মেলা শুরু হবে এমনটাই প্রত্যাশা করছেন স্থানীয় এলাকাবাসী।

স্থানীয়দের কয়েকজন জানান, পল্লী কবির বাড়ীটিকে ঘিরে বিভিন্ন স্থান থেকে প্রতিদিন অনেক মানুষ আসে এখানে। কিন্তু বাড়ীটিতে এসে হতাশ হন তারা। বাড়ীটিতে কবির ব্যবহৃত জিনিসপত্র তেমন একটা নেই। নেই বসার কোন স্থান। নেই টয়লেটের ব্যবস্থাও। শীত মৌসুমে বিভিন্ন জেলা থেকে ছাত্র-ছাত্রী ও লোকজন পিকনিক করতে আসেন পল্লী কবির বাড়ীতে। এখানে এসে হতাশ হন তারা। জসীমউদদীনের বাড়ী সংলগ্ন জসীম সংগ্রহশালা নির্মাণ করা হলেও সেটির প্রচার-প্রচারণা না থাকায় লোকজন সেখানে যাচ্ছে না। কবির বাড়িটিকে ঘিরে নানা উদ্যোগ গ্রহণ করা হবে এমনটাই প্রত্যাশা কবি ভক্ত অনুরাগীদের।

আজ ১লা জানুয়ারি, পল্লী কবি জসীমউদদীনের ১১৮তম জন্মবার্ষিকী। কবির জন্মদিনকে ঘিরে দিনব্যাপী নানা অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে বিভিন্ন সংগঠন। সকালে কবির কবরে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানাবে বিভিন্ন সংগঠন। পরে দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়েছে। বিকেলে কবির বাড়ী সংলগ্ন উদ্যানে আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে জসীম ফাউন্ডেশন।

এই বিভাগের আরো খবর